শনিবার | নভেম্বর ২৩, ২০১৯ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

শেয়ারবাজার

আইপিডিসির ঋণমান ‘ট্রিপল এ’ ও ‘এসটি-ওয়ান’

নিজস্ব প্রতিবেদক

আইপিডিসি ফিন্যান্স লিমিটেডের ঋণমান দীর্ঘমেয়াদেট্রিপল এ ও স্বল্পমেয়াদেএসটি-ওয়ান। ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনসহ হালনাগাদ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রত্যয়ন করেছে ইমার্জিং ক্রেডিট রেটিং লিমিটেড (ইসিআরএল)

অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন) আইপিডিসি ফিন্যান্সের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৩৬ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৭২ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৬৪ পয়সা। দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৬৯ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪২ পয়সা।

২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৭ শতাংশ নগদ ও ৮ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে আইপিডিসি। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির বার্ষিক ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৬ পয়সা, আগের বছর যা ছিল ১ টাকা ৫৪ পয়সা।

সম্প্রতি রাইট শেয়ারের মাধ্যমে বিদ্যমান দুটি সাধারণ শেয়ারের বিপরীতে একটি করে নতুন সাধারণ শেয়ার ইস্যু করে আইপিডিসি ফিন্যান্স। কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে মোট ১১ কোটি ৭৮ লাখ ৬ হাজার ৮৪০টি সাধারণ শেয়ার ছেড়েছে। এর মাধ্যমে তারা ১৪১ কোটি ৩৬ লাখ ৮২ হাজার ৮০ টাকা উত্তোলন করেছে। প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ১২ টাকা। এর মধ্যে ১০ টাকা অভিহিত মূল্য ও ২ টাকা প্রিমিয়াম। মূলধন ভিত্তি শক্তিশালী করতে এ রাইট শেয়ার ইস্যু করেছে তারা। এতে কোম্পানিটির বিনিয়োগ কার্যক্রম, যেমন রিটেইল লোন, এসএমই লোন, করপোরেট লোন ইত্যাদি বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল আইপিডিসি শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ২২ টাকা ৮০ পয়সা। সমাপনী দর ছিল ২২ টাকা ৯০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ২১ টাকা ১০ পয়সা ও ৪৭ টাকা ৩০ পয়সা।

২০০৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আইপিডিসির অনুমোদিত মূলধন ৪০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ৩৫৩ কোটি ৪২ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ১২২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। মোট শেয়ারের ৪০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকের কাছে। এছাড়া সরকারের কাছে ২১ দশমিক ৮৮ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২৫ দশমিক ৯৯, বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছে ২ দশমিক ৮৪ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে বাকি ৯ দশমিক ২৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

সর্বশেষ নিরীক্ষিত ইপিএস ও বাজারদরের ভিত্তিতে এ শেয়ারের মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) ১১ দশমিক ৯৯, হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে যা ৮ দশমিক ৪২।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন