রবিবার | নভেম্বর ১৭, ২০১৯ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দেশের খবর

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১২

বণিক বার্তা ডেস্ক

ঠাকুরগাঁওয়ে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ঢাকার ধামরাই, সাভার ও চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন আরো চারজন। গতকাল ও গত বৃহস্পতিবার রাতে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

ঠাকুরগাঁও: দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ২০ জন। গতকাল সকালে ঠাকুরগাঁও-ঢাকা মহাসড়কের খোচাবাড়ি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল সকালে ঠাকুরগাঁও থেকে ছেড়ে যাওয়া নিশাত এন্টারপ্রাইজের একটি বাস ঠাকুরগাঁও-ঢাকা মহাসড়কের খোচাবাড়ি নামক স্থানে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা নাবিল এন্টারপ্রাইজের অপর একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই চালকসহ পাঁচজন নিহত হন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহত ২৩ জনকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা যান আরো দুজন। তারা হলেন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ব্যাংরোল জিয়াবাড়ি গ্রামের মোস্তফা ও তার স্ত্রী মন্সুরা বেগম।

আহতদের ১১ জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে নেয়ার পথেই মজিদ নামে আরো একজনের মৃত্যু হয়। নিহত মজিদ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর এলাকার বাসিন্দা।

এ দুর্ঘটনায় নিহত আটজনের মধ্যে দুজন দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার এবং বাকিরা সবাই ঠাকুরগাঁও জেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান দুর্ঘটনায় আটজনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে জানান, নিহতদের মরদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দুর্ঘটনার বিষয়ে হাইওয়ে থানা পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।

ঢাকা: ধামরাই ও সাভারে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে ধামরাইয়ের বাথুলী ও গতকাল সকালে সাভারের সিঅ্যান্ডবি এলাকায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন ধামরাইয়ের সুতিপাড়া ইউনিয়নের বালিথা গ্রামের সেলিম, মাসুদ ও কুমিল্লার দেবিদ্বার থানার সোনারঘর এলাকার মুন্সীর মেয়ে শিল্পী আক্তার।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে বাথুলী এলাকায় একটি ট্রাক একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলটির আরোহী সেলিম, মাসুদ ও শাওন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তির পর সেলিম ও মাসুদের মৃত্যু হয়।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা জানান, নিহতদের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ট্রাকটি শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

এদিকে সাভারে বাস থেকে ছিটকে পড়ে চাকায় পিষ্ট হয়ে শিল্পী আক্তার মারা যান। তিনি চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের কম্পিউটার কৌশল বিভাগের ছাত্রী। পুলিশ জানায়, রাজধানী থেকে ছেড়ে আসা বাসের চালক নবীনগর যাওয়ার পথে সিঅ্যান্ডবি এলাকায় হঠাত্ ব্রেক কষলে ওই বাসের সামনের সিটে গেটের কাছে বসে থাকা শিল্পী আক্তার ছিটকে নিচে পড়ে যান। পরে ওই বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

সাভার মডেল থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, বাসটির চালককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় চালকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চট্টগ্রাম: নগরীর পতেঙ্গা এলাকায় লরির চাপায় রাসেল (৩৫) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। গতকাল সকালে সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেডের কনটেইনার ডিপোতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রাসেল নগরীর মধ্যম হালিশহর এলাকার মোজাফফর রহমানের ছেলে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক হামিদুর রহমান জানান, ওই ডিপোতে আসা কনটেইনার পরীক্ষার সময় দুর্ঘটনাবশত একটি লরি রাসেলকে চাপা দেয়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিত্সক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন