বৃহস্পতিবার | নভেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬

খবর

অর্থ ও প্রযুক্তি খাতে উদ্ভাবনের স্বীকৃতি পেল ডিমানি

নিজস্ব প্রতিবেদক

চলতি বছরের সম্ভাব্য ‘শীর্ষ দশ ওয়ালেট’ হিসেবে ডিমানি বাংলাদেশ লিমিটেডকে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে অ্যাপাক বিজনেস হেডলাইনস। শীর্ষ দশের এ তালিকায় দক্ষিণ এশিয়া থেকে স্থান পাওয়া একমাত্র ওয়ালেট ডিমানি। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে প্রযুক্তি ও আর্থিক খাতে উদ্ভাবন এবং এ খাতের সিআইও, সিএক্সওসহ নীতিনির্ধারকদের মতামত ও প্রত্যাশা নিয়ে কাজ করে অ্যাপাক বিজনেস হেডলাইনস।

ডিমানি সূত্রে জানা গেছে, এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে ফিনটেক (অর্থ ও প্রযুক্তি) খাতে শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর পর্যবেক্ষণে তৈরি করা হয়েছে তালিকাটি। কীভাবে ওয়ালেট প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিশেষত্ব, বিপণন কৌশল ও উদ্ভাবনী পণ্যের মাধ্যমে প্রযুক্তি খাতে শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হয়ে উঠছে, এ বিষয়ে আলোকপাত করেছে অ্যাপাক। তালিকায় থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ডিমানি ফিনটেক খাতে অন্যতম শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। ডিমানি বাংলাদেশ লিমিটেডের সহপ্রতিষ্ঠাতা সোনিয়া বশির কবির ও আরিফ বশির। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী।

আগামী সেপ্টেম্বরে ডিমানির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে জানিয়ে সোনিয়া বশির কবির বলেন, ডিমানির প্লাটফর্মে মূল বিষয়গুলো হলো সুরক্ষা, ইন্টারনাল কমপ্লায়েন্স এবং কাজের পরিধি ও সামর্থ্য। আমাদের একদল নিবেদিত সফটওয়্যার প্রকৌশলী রয়েছে, যারা নিরলসভাবে প্রতি মিনিটে ট্রানজেকশন স্ট্রেস টেস্ট, অবৈধ লেনদেনের সম্ভাব্য সমস্যা ও বিভিন্ন ধাপে সুরক্ষা নিশ্চিত করে নিরাপদ ডিমানি প্লাটফর্ম তৈরি করেছেন।

আরিফ বশির বলেন, বাংলাদেশের বাজার অনেক বড়। কিন্তু তা সুবিধাবঞ্চিত। এ মুহূর্তে ডিজিটাল লাইফস্টাইল ও আর্থিক সেবা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। এ চ্যালেঞ্জ সামনে নিয়ে চাহিদা পূরণই ডিমানির লক্ষ্য। ইকোসিস্টেম ও অংশীদার তৈরিতে কাজ করবে ডিমানি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন