খবর

ইসলামী পর্যটনকে ‘বিশ্ব বাণিজ্য ব্র্যান্ড’ করতে রোডম্যাপ প্রয়োজন —প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ২০, ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বার্ষিক ৮ দশমিক ৩ শতাংশ হারে বেড়ে ২০২১ সাল নাগাদ ইসলামী পর্যটনের বাজার দাঁড়াবে ২৪৩ বিলিয়ন ডলারে। সুতরাং ইসলামী পর্যটনকে ‘বিশ্ব বাণিজ্য ব্র্যান্ড’ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা ও রোডম্যাপ থাকা জরুরি। রাজধানীর একটি হোটেলে গতকাল ‘ঢাকা ওআইসি পর্যটননগরী-২০১৯’-এর দুই দিনব্যাপী অফিশিয়াল সেলিব্রেশন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, হালাল ফুডস, ইসলামী ফিন্যান্স, হালাল ফার্মাসিউটিক্যালস, প্রসাধনী, হালাল পর্যটন ইত্যাদি ইসলামিক অর্থনীতির ক্রমবর্ধমান খাত। এ খাতগুলোর বিকাশের জন্য ওআইসি সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রগুলোর সরকারি ও বেসরকারি—উভয় খাতের সহযোগিতা ও অংশীদারিত্ব একান্ত প্রয়োজন।

তিনি বলেন, ওআইসি সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রগুলো পর্যটন খাতের অবকাঠামো ও উন্নয়নমূলক প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য তাদের বেসরকারি খাতকে একক ও যৌথভাবে অংশগ্রহণের জন্য উৎসাহ দেবে। আশা করছি, আন্তঃওআইসি পর্যটকপ্রবাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভিসা সহজীকরণ, বিনিয়োগ বৃদ্ধি, ব্র্যান্ডিং ও মানোন্নয়নে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের ক্ষেত্রে পুরো বিশ্বে পর্যটন একটি দ্রুতবর্ধনশীল খাত হিসেবে স্বীকৃত। বিশ্ব ভ্রমণ ও পর্যটন কাউন্সিলের তথ্যমতে, সব দেশেরই জাতীয় আয়ে পর্যটন খাতের অবদান বাড়ছে। বিপুল সম্ভাবনাময় পর্যটনকে ব্যবহার করে আমরা কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও জনগণের কাজের সুযোগ সৃষ্টির চেষ্টা করে যাচ্ছি। এছাড়া কমিউনিটিভিত্তিক পর্যটন ব্যবস্থা গড়ে তুলে দেশের বিভিন্ন এলাকার জনগণকে সরাসরি পর্যটনে সম্পৃক্ত করে তাদের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্যও আমরা কাজ করছি।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ওআইসি সদস্যভুক্ত পর্যটনমন্ত্রীদের দশম সম্মেলনে গৃহীত ঢাকা ঘোষণায় আন্তঃসাংস্কৃতিক বিনিময়, সংরক্ষণ, রক্ষণাবেক্ষণ ও ইসলামী পর্যটন জনপ্রিয় করার গুরুত্ব স্বীকার করা হয়। একই সঙ্গে পর্যটন খাতে দক্ষতা, উন্নয়ন ও সার্টিফিকেশনের জন্য একটি ইনস্টিটিউট স্থাপনের গুরুত্ব অনুধাবন করা হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বে মুসলিম ট্যুরিস্টের সংখ্যা ১৫৬ মিলিয়ন, যা ২০২০ সালে বেড়ে দাঁড়াবে ১৮০ মিলিয়নে। একই বছর সারা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ২৬ শতাংশ হবে মুসলিম। টমসন রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৫ সালে ইসলামী পর্যটনের বাজার ছিল ১৫১ মিলিয়ন ডলারের, যার মধ্যে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর বাজার ছিল প্রায় ১০৯ বিলিয়ন ডলারের। ইসলামী পর্যটনের বাজার বার্ষিক ৮ দশমিক ৩ শতাংশ হারে বেড়ে ২০২১ সাল নাগাদ দাঁড়াবে ২৪৩ বিলিয়ন ডলারে। সুতরাং ইসলামী পর্যটনকে ‘বিশ্ব বাণিজ্য ?ব্র্যান্ড’ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা ও রোডম্যাপ থাকা জরুরি।