ভ্রমণ

যেখানে যেমন কুশন কভার

ফিচার ডেস্ক | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ২০, ২০১৯

কাঠের সোফা বা ডিভান হলে এবং ঘরে যদি বেশি আলো প্রবেশ করে, তাহলে কুরশি কাঁটার কাজ করা কুশন ও সিনথেটিক কাপড়ের রঙিন কুশন ব্যবহার করলেও ভালো লাগবে। তাছাড়া বসার ঘর যদি বড় এবং আসবাবগুলো একটু অভিজাত ঘরানার হয়, তাহলে ছোট-বড় বিভিন্ন আকারের কুশনে কাতান, সাটিন, লেস, নেটের কভার লাগালে ভালো লাগবে

একটা সময় ছিল, যখন অভিজাত পরিবারগুলোতেই কেবল সোফাসেট শোভা পেত। কিন্তু সোজাসাপ্টা সোফাসেটই। এরপর সুন্দর দেখাতে ও আরামের জন্য কুশন ব্যবহারের প্রচলন এল। তখন অবশ্য একটা নির্দিষ্ট মাপেরই কুশন পাওয়া যেত বা বানিয়ে নিতে হতো। কিন্তু এখনকার কথা একেবারেই আলাদা। সোফা, ইজিচেয়ার, ডিভান, গদি ও খাটে সবখানেই ব্যবহার হচ্ছে নানা আকৃতি ও মাপের কুশন। আবার কুশন কভারের কাপড় ও নকশায়ও এসেছে নান্দনিকতা। তাই কোন ঘরে কেমন কুশন ব্যবহার করবেন, সে সম্পর্কে একটু জেনে নিন—

বসার ঘরে সোফা, ডিভান বা মেঝেতে বসার ব্যবস্থাই মূলত থাকে। ছোট বসার ঘর হলে সোফা ও ডিভানে মাঝারি আকারের কুশন রাখতে পারেন। সোফা যদি বেতের হয়, তাহলে গ্রামীণ চেক, খাদি, সুতি কাপড়ের কুশন কভার ভালো লাগবে। কাঠের সোফা বা ডিভান হলে এবং ঘরে যদি বেশি আলো প্রবেশ করে, তাহলে কুরশি কাঁটার কাজ করা কুশন ও সিনথেটিক কাপড়ের রঙিন কুশন ব্যবহার করলেও ভালো লাগবে। তাছাড়া বসার ঘর যদি বড় এবং আসবাবগুলো একটু অভিজাত ঘরানার হয়, তাহলে ছোট-বড় বিভিন্ন আকারের কুশনে কাতান, সাটিন, লেস, নেটের কুশন কভার লাগালে ভালো লাগবে।

বর্তমানে শোয়ার ঘরে বালিশের সঙ্গে কয়েক আকারের কুশন ব্যবহার করা হয়। যেহেতু এসব কুশন ঘুমানোর সময়ও ব্যবহার করা হয়, তাই এমন কাপড়ের কুশন কভার বাছাই করুন, যেগুলো আরামদায়ক, স্বল্প কাজের ও ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকারক নয়। সুতি, খাদি, জাপানি সিল্ক, সাটিন ইত্যাদি কাপড়ের কুশন কভার হলেই ভালো। কুশন কভারের রঙ বিছানার চাদর ও ঘরের পর্দার সঙ্গে মিলিয়ে কিনুন।

কোথায় পাবেন: কুশন কভার কেনার আগে মাথায় রাখতে হবে, আপনি কোন ঘরানায় ঘর সাজাতে চান। গ্রামীণ স্টাইলে ঘর সাজাতে চাইলে দেশীয় বুটিক হাউজগুলো থেকে কুশন কভার কিনতে পারেন। এখন অবশ্য এসব বুটিক হাউজগুলোতেই বিভিন্ন কাপড় ও নানা স্টাইলের কুশন কভার পাওয়া যায়। এছাড়া সাশ্রয়ী মূল্যে কুশন কভার কিনতে চাইলে ঘুরে আসতে পারেন নিউমার্কেট, চাঁদনীচক, গাউছিয়া মার্কেট থেকেও। এছাড়া কাপড় কিনে ব্লকপ্রিন্ট, সেলাই বা অ্যাপ্লিক করে নিজেও বানিয়ে নিতে পারেন মনমতো কুশন কভার। তবে যেমন কুশন কভারই কিনুন না কেন, কেনার আগে খেয়াল রাখতে হবে—আপনার বাড়িতে কতটা আলো প্রবেশ করে, ধুলোবালির মাত্রা কেমন ও শিশু বা পোষ্য আছে কিনা। কারণ এগুলোর ওপরও নির্ভর করে কেমন কাপড়ের কুশন কভার কিনবেন ও তা জমকালো হবে, নাকি প্রায়ই ধোয়ার উপযোগী হিসেবে কিনতে হবে।

 

সূত্র: সিম্পলি কুশনস