খেলা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯, , ,

বাংলাদেশের জন্য পেস দাওয়াই

ক্রীড়া প্রতিবেদক | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ২০, ২০১৯

আজ নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজে বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলবে অস্ট্রেলিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে দিয়ে উজ্জীবিত বাংলাদেশকে নিয়ে একটু বাড়তি ভাবতে হচ্ছে অসিদের। দলটির সাবেক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক এ দ্বৈরথে দলে বিশেষজ্ঞ স্পিনার রাখার পরামর্শ দিলেও কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার এ পথে হাঁটতে নারাজ। তিনি বরং ফাস্ট বোলিং ব্রিগেডের ওপরই আস্থা রাখছেন। অসি কোচ বলেছেন, চলতি আসরে তো ব্যাটসম্যানদের মূল ক্ষতিটা করছেন পেস বোলাররাই।

অস্ট্রেলিয়ার বোলিং অ্যাটাক নিয়ে ক্লার্ক বলেন, ‘আমার উদ্বেগের জায়গা হলো, তারা কিন্তু খাঁটি কোনো স্পিনারকে দলে রাখছে না। আমার মনে হয়, অলরাউন্ডার থাকুক কিংবা না-ই থাকুক, তাদের শীর্ষ সারির একজন স্পিনার থাকা উচিত।’ এ নিয়ে কী ভাবছেন ল্যাঙ্গার? তার কথায়, ‘বিশ্ব ক্রিকেটে, বিশেষ করে ওয়ানডে ক্রিকেটে মাঝের ওভারগুলোয় উইকেট নিতে হবে আপনাকে, কিন্তু এ টুর্নামেন্টে অত বেশি উইকেট পড়ছে কি? পাকিস্তান ও শ্রীলংকা ম্যাচে আমাদের বোলাররা ছিল অসাধারণ। এ বিষয়টি অবশ্যই আমাদের ভাবনায় রাখতে হবে।’

পেস বোলারদের কার্যকারিতা নিয়ে ল্যাঙ্গার আরো বলেন, ‘এই কন্ডিশনে চলতি বিশ্বকাপে কিন্তু পেস বোলাররাই কর্তৃত্ব করে আসছে। গত চার বছর বিশ্ব ক্রিকেট শাসন করেছে স্পিন, কিন্তু এখন তা পাল্টে গেছে। এখানকার (ইংল্যান্ড-ওয়েলস) কন্ডিশন অন্য রকম: উইকেট ভেজা থাকছে, আকাশও মেঘে ঢাকা।’

অনেকেই বলে থাকেন, অস্ট্রেলিয়ার একাদশ স্থিতিশীল নয়। কিন্তু এটা মানতে রাজি নন ল্যাঙ্গার। বরং তিনি একে উড়িয়েই দিলেন। তার কথায়, ‘কিছু মানুষ ভাবে এটা আমাদের দুর্বলতা। কিন্তু আমি তো ভাবি, এটা আমাদের শক্তি। আমরা প্রতিপক্ষ বিচার করে খেলতে পারি, আমরা ভেনুর অবস্থা বিচার করে খেলতে পারি কিংবা আমরা খেলোয়াড়দের ব্যবস্থাপনা করে তাদের খেলাতে পারি। এটা বলতে পারেন আমাদের শক্তির জায়গা, মোটেও দুর্বলতা নয়।’

প্যাট কামিন্স ও মিচেল স্টার্কের সঙ্গে গতির ঝড় তুলছেন কেন রিচার্ডসন ও জ্যাসন বেহরেনডর্ফ। তাদের সঙ্গে পঞ্চম বোলার হিসেবে ১০ ওভার স্পিন বোলিং করে ল্যাঙ্গারকে চিন্তামুক্ত রাখছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। সিডনি মর্নিং হেরাল্ড