দেশের খবর

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল : শিশু ওয়ার্ডে ছাদের  পলেস্তারা খসে পড়ে আহত ১১

বণিক বার্তা প্রতিনিধি নোয়াখালী | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ১২, ২০১৯

নোয়াখালী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের পুরনো ভবনের শিশু ওয়ার্ডে ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে অসুস্থ আট শিশু ও তাদের স্বজনসহ ১১ জন আহত হয়েছে। গতকাল সকাল ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলো সুমাইয়া, ইসমাইল, ইমাম উদ্দিন, রাসেল, বাদশা, রাফি, পারুল বেগম ও রোজিনা আক্তার। অন্যদের পরিচয় জানা যায়নি।

শিশু ওয়ার্ডে কর্তব্যরত জ্যেষ্ঠ স্টাফ নার্স নিলুপা আক্তার জানান, সকাল ৭টার দিকে তিনিই ওই ওয়ার্ডে দায়িত্বে ছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে তার সামনেই ছাদ থেকে পলেস্তারা খসে রোগীদের ওপর পড়ে। মুহূর্তের মধ্যে ওয়ার্ডে থাকা অর্ধশতাধিক রোগী ও তাদের স্বজনরা দিগ্বিদিক ছোটাছুটি শুরু করে।

জানা গেছে, ২০১৫ সালে গণপূর্ত বিভাগ ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করে। বছরখানেক আগেও ভবনটির অন্য একটি ওয়ার্ডে পলেস্তারা খসে পড়ে কর্তব্যরত সেবিকাসহ কয়েকজন আহত হয়েছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন সময় আরো কয়েকবার এ ধরনের ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটেছিল। তা সত্ত্বেও রোগীর চাপ সামলাতে ওই ভবনে চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রাখে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

গতকাল দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সকাল পৌনে ১০টায় হাসপাতাল পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস। এ সময় তিনি দুপুর ১২টার মধ্যে পুরনো ভবনের দ্বিতীয় তলার চারটি ওয়ার্ড খালি করে দেয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। ১২টার পর প্রশাসনের পক্ষ থেকে ওই ওয়ার্ডগুলোতে সিলগালা করে দেয়া হবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক। পরবর্তী সময়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশু রোগীদের বিভিন্ন হাসপাতালে রেফার করা হয় এবং কয়েকজনকে একই হাসপাতালের সার্জারি বিভাগে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. খলিল উল্যাহ বলেন, ২০১৫ সালে ওই ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা হলেও হাসপাতালে রোগীর চাপ বেশি থাকায় বাধ্য হয়ে সেখানে চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছিল। এরই মধ্যে আজ সকাল পৌনে ৭টার দিকে ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে রোগী ও স্বজনসহ নয়জন আহত হয়। আহতদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে। তাছাড়া দুর্ঘটনার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে তাত্ক্ষণিকভাবে অবহিত করা হয়েছে বলেও জানান তত্ত্বাবধায়ক।