খেলা

স্বদেশী আরচারকে সামলাতে প্রস্তুত ক্যারিবীয়রা

বণিক বার্তা অনলাইন | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ২০, ২০১৯

ইংলিশ পেসার জফরা আরচারকে সামাল দিতে ভালোভাবেই প্রস্তুত হয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ—এমনটাই জানালেন ক্যারিবীয় হেড কোচ ফ্লয়েড রেইফার। আগামী শুক্রবার সাউদাম্পটনে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বিশ্বকাপের আগে থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছেন আরচার।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২৭ রানে তিন উইকেট ও বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৯ রানে দুই উইকেট পেয়েছেন এ স্পিডস্টার। যদিও পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ৭৯ রান দিয়েও কোনো উইকেট পাননি। কিন্তু তার দুরন্ত গতির বোলিং ব্যাটসম্যানদের চোখে ধাঁধা লাগিয়ে দিচ্ছে। গড়ে ১৪৫ কিমি প্রতি ঘণ্টায় বল করতে সক্ষম ২৪ বছর বয়সী এ ফাস্ট বোলার।

খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম বিধ্বংসী বোলার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছেন বার্বাডোজে জন্ম নেয়া ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত এ পেসার। আরচার ও মার্ক উডের জুটি ইংল্যান্ডের বোলিং লাইনআপকে শক্তিশালী করে তুলেছে।

এদিকে ক্যারিবীয়দের ব্যাটিং লাইনআপও এ বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা। আরচারের তীব্র গতির বল সামলানোটাই এ মুহূর্তে ক্যারিবীয়দের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। কীভাবে পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন ক্যারিবীয়রা?

ফ্লয়েড রেইফার বললেন, আরচারকে আসলে আমি অনেক লম্বা সময় ধরে জানি। বার্বাডোজে খেলে বড় হয়েছে ও, যেখানে আমরাও থাকি। আমি ওকে অনূর্ধ্ব ১৫, ১৭ ও ১৯ দলে খেলতে দেখেছি। ছোট বয়সে বেশকিছু ইনজুরির সঙ্গে লড়াই করতে হয়েছে ওকে। আজকাল ও খুব জোরে বোলিং করছে। ইনজুরির সমস্যাগুলো হয়তো ওকে আর আগের মতো ভোগায় না। কিন্তু আমাদের দলের খেলোয়াড়রা দ্রুতগতির বোলিং মোকাবেলা করতে অভ্যস্ত। এটা আমাদের জন্য নতুন কিছু নয়। সত্যি কথা বলতে গেলে, আমরা ম্যাচটি খেলতে মুখিয়ে আছি।

ক্যারিবীয় হওয়া সত্ত্বেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য না খেলে ইংল্যান্ডের জন্য খেলছেন আরচার। এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে ফ্লয়েড বলেন, এটা একান্তই তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। আমার এখানে কিছু বলার নেই।