সেবার ধরন নির্ধারণ করে বিধিমালা সংশোধন

১০০ গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে পাঁচ তারকা হোটেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ২০, ২০১৯

দুই তারকা হোটেলে কমপক্ষে ১০টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে। তিন তারকার ক্ষেত্রে ৫০টি, চার তারকার ক্ষেত্রে ৭৫টি আর পাঁচ তারকার ক্ষেত্রে গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে কমপক্ষে ১০০টি। এর পাশাপাশি আরো কিছু শর্ত জুড়ে দিয়ে তারকা হোটেল ও রিসোর্টের সেবার ধরন নির্ধারণ করে বাংলাদেশ হোটেল ও রেস্তোরাঁ বিধিমালা সংশোধন করা হয়েছে। বিধিমালাটি সম্প্রতি প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

৩০ মে জারি করা বিধিমালায় বলা হয়েছে, তারকা মানের হোটেলগুলোয় নিয়োগ দেয়া কর্মচারীদের সরকার স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত হতে হবে। এক তারকা মানের হোটেলের মোট কর্মচারীর ১০ শতাংশ, দুই তারকা হোটেলের মোট কর্মচারীর ২০, তিন তারকা হোটেলের ৩০, চার তারকা হোটেলের ৪০ ও পাঁচ তারকা হোটেলের মোট কর্মচারীর ৫০ শতাংশ সরকার স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত হতে হবে।

কোন মানের হোটেলে কতটি কক্ষ থাকবে, তাও নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে বিধিমালায়। এক তারকা হোটেলে কক্ষ থাকতে হবে কমপক্ষে ১০টি। এছাড়া দুই তারকার ক্ষেত্রে ৩০, তিন তারকার ক্ষেত্রে ৫০, চার তারকার ক্ষেত্রে ৭৫ ও পাঁচ তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে কমপক্ষে ১০০টি কক্ষ থাকতে হবে। এক তারকা হোটেলের কক্ষগুলোয় এয়ারকন্ডিশনিং ও হিটিং ব্যবস্থা রাখার বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়নি। তবে দুই তারকা হোটেলের মোট কক্ষের কমপক্ষে ২০ শতাংশ এবং তিন তারকা থেকে পাঁচ তারকা পর্যন্ত হোটেলগুলোর সব কক্ষে ও কমন স্পেসে এয়ারকন্ডিশনিং ও হিটিং ব্যবস্থা থাকতে হবে।

তিন, চার ও পাঁচ তারকা হোটেলে হেয়ার ড্রায়ার, ওভেন ও সমজাতীয় অন্যান্য ব্যবস্থা, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডে বিল পরিশোধের ব্যবস্থা থাকতে হবে। বুফে ব্যবস্থায় সকালের নাশতা, দুপুর ও রাতের খাবার ও মিনি রেফ্রিজারেটর (ছোট ফ্রিজ), প্রতিটি কক্ষে সার্বক্ষণিক ঠান্ডা ও গরম পানির ব্যবস্থাও রাখতে হবে। সেবার তালিকা ও সেবা মূল্য প্রদর্শন করতে হবে এক থেকে পাঁচ তারকা পর্যন্ত সব হোটেলে।

কোন মানের হোটেলে কী ধরনের পার্কিং সুবিধা রাখতে হবে, তাও উল্লেখ করা হয়েছে বিধিমালায়। এতে বলা হয়েছে, এক তারকা হোটেলের নিজস্ব পার্কিং ব্যবস্থা থাকতে হবে। দুই তারকা হোটেলে গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে কমপক্ষে ১০টি। এছাড়া তিন তারকার ক্ষেত্রে ৫০টি, চার তারকার ক্ষেত্রে ৭৫টি ও পাঁচ তারকা হোটেলে কমপক্ষে ১০০টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রাখতে হবে। এক তারকা হোটেলে তথ্যপ্রযুক্তি সুবিধার বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়নি সংশোধিত বিধিমালায়। তবে দুই তারকা মানের হোটেলের ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে। তিন, চার ও পাঁচ তারকা হোটেলে কনফারেন্স কক্ষসহ প্রতিটি কক্ষে ও উন্মুক্ত স্থানে ওয়াই-ফাইসহ তারযুক্ত ইন্টারনেট সংযোগ, ফ্যাক্স, ফটোকপিয়ার, প্রিন্টার, স্ক্যানারসহ বিজনেস সেন্টার থাকতে হবে। এসব হোটেলের থাকতে হবে নিজস্ব ওয়েবসাইট ও অনলাইন রিজার্ভেশন ব্যবস্থা।

এক তারকা হোটেলের কমপক্ষে ৫০ শতাংশ কক্ষে সংযুক্ত স্নানাগার রাখার শর্ত দেয়া হয়েছে সংশোধিত বিধিমালায়। দুই ও তিন তারকার ক্ষেত্রে শতভাগ কক্ষে স্নানাগার থাকতে হবে। আর চার ও পাঁচ তারকা হোটেলের শতভাগ কক্ষের পাশাপাশি অন্যান্য প্রয়োজনীয় স্থানেও সংযুক্ত স্নানাগার থাকতে হবে। বাথরুমসহ এক তারকা হোটেলের শয়নকক্ষের আয়তন হবে ১০ বর্গমিটার। দুই তারকার ক্ষেত্রে এটি ১৮ বর্গমিটার, তিন তারকার ক্ষেত্রে ২০ বর্গমিটার, চার তারকার ক্ষেত্রে ২৪ বর্গমিটার ও পাঁচ তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে ২৬ বর্গমিটার হতে হবে। এক ও দুই তারকা হোটেলে ব্যাঙ্কুয়েট হল বা মাল্টিপারপাস হল না থাকলেও চলবে। তবে তিন তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কমপক্ষে ১৫০ আসনবিশিষ্ট ব্যাঙ্কুয়েট হল সুবিধা, চার তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে ৩০০ আসনবিশিষ্ট ও পাঁচ তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে কমপক্ষে ৪০০ আসনবিশিষ্ট ব্যাঙ্কুয়েট হল থাকতে হবে। তিন তারকা হোটেলে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কমপক্ষে ৩০ আসনের দুটি সভাকক্ষ, চার তারকা হোটেলে আধুনিক সুবিধাসহ ৪০ আসনবিশিষ্ট তিনটি সভাকক্ষ থাকতে হবে, যা প্রয়োজন হলে ১২০ আসনবিশিষ্ট একটি কক্ষে রূপান্তর করা সম্ভব। পাঁচ তারকা হোটেলের ক্ষেত্রে ৫০ আসনবিশিষ্ট এ ধরনের তিনটি সভাকক্ষ থাকতে হবে, যেগুলো প্রয়োজনে ১৫০ আসনবিশিষ্ট কক্ষে রূপান্তর করা যাবে।

তিন থেকে পাঁচ তারকা মানের হোটেলে আধুনিক জিমনেশিয়াম, সুনা, স্টিম বাথ ও স্পা এবং পৃথক লাগেজ রুম, স্টোর ও সেফটি ভল্ট বা লকার, লন্ড্রি এবং বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় ব্যবস্থা থাকতে হবে। চার ও পাঁচ তারকা হোটেলে ব্যবস্থা থাকতে হবে সুইমিং পুল ও গাড়ি ভাড়া নেয়ার।

রিসোর্টের ক্ষেত্রেও সেবার মান নির্ধারণ করা হয়েছে বিধিমালায়। বিধিমালা অনুযায়ী, এক তারকা রিসোর্টে কমপক্ষে ১০টি, দুই তারকার ক্ষেত্রে ১৫টি, তিন তারকার ক্ষেত্রে ৩০টি, চার তারকার ক্ষেত্রে ৪০টি ও পাঁচ তারকা রিসোর্টে কমপক্ষে ৫০টি কক্ষ থাকতে হবে। তিন তারকা থেকে পাঁচ তারকা পর্যন্ত রিসোর্টগুলোর সব কক্ষে ও কমন স্পেসে এয়ারকন্ডিশনিং ও হিটিং ব্যবস্থা থাকতে হবে। তিন, চার ও পাঁচ তারকা রিসোর্টে হেয়ার ড্রায়ার, ওভেন ও সমজাতীয় অন্যান্য ব্যবস্থা, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডে বিল দেয়ার ব্যবস্থা, বুফে ব্যবস্থায় সকালের নাশতা, দুপুর ও রাতের খাবার এবং মিনি রেফ্রিজারেটর (ছোট ফ্রিজ), প্রতিটি কক্ষে সার্বক্ষণিক ঠান্ডা ও গরম পানির ব্যবস্থা থাকতে হবে। দুই তারকা মানের রিসোর্টে ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে। তিন, চার ও পাঁচ তারকা রিসোর্টে কনফারেন্স কক্ষসহ প্রতিটি কক্ষে ও উন্মুক্ত স্থানে ওয়াই-ফাইসহ তারযুক্ত ইন্টারনেট সংযোগ, ফ্যাক্স, ফটোকপিয়ার, প্রিন্টার, স্ক্যানারসহ বিজনেস সেন্টার থাকতে হবে। এসব রিসোর্টের নিজস্ব ওয়েবসাইট, অনলাইন রিজার্ভেশন ও বুফে তিন বেলা খাবারের ব্যবস্থা থাকতে হবে। দুই তারকা রিসোর্টে কমপক্ষে ১০টি, তিন তারকার ক্ষেত্রে ২০টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে। চার তারকা রিসোর্টে মিনি ও বড় বাসসহ কমপক্ষে ৩০টি ও পাঁচ তারকা রিসোর্টে ৪০টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকতে হবে।