আন্তর্জাতিক ব্যবসা

দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে ব্রেক্সিট-পরবর্তী মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি যুক্তরাজ্যের

বণিক বার্তা ডেস্ক    | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ১২, ২০১৯

নীতিগতভাবে ব্রেক্সিট-পরবর্তী একটি মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিতে (এফটিএ) স্বাক্ষর করেছে যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ কোরিয়া। ব্রেক্সিট-উত্তর চলমান বাণিজ্য ব্যবস্থা অব্যাহত রাখার ব্যাপারে দক্ষিণ কোরিয়ার আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমন্ত্রী ইয়ু মিয়ুং হির সঙ্গে এ চুক্তিতে পৌঁছেছেন যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমন্ত্রী লিয়াম ফক্স। খবর বিবিসি।

উভয় পক্ষের মধ্যে প্রাথমিক এ সমঝোতার ফলে এশিয়ায় প্রথম কোনো ব্রেক্সিট-উত্তর চুক্তিতে পৌঁছাল ব্রিটেন। চলমান কোরিয়া-ইইউ এফটিএর আওতায় থেকেই এ চুক্তিতে পৌঁছাল উভয় পক্ষ।

ব্রিটেনের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির সুবিধা পাচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার গাড়ি, গাড়ির যন্ত্রাংশসহ বিভিন্ন পণ্য। ব্রিটেনে দক্ষিণ কোরিয়া মূলত গাড়ি ও জাহাজ রফতানি করে এবং সেখান থেকে আমদানি করে অপরিশোধিত তেল ও গাড়ি।

সিউলের সঙ্গে লন্ডনের এ নীতিগত চুক্তি স্বাক্ষরের ফলে চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের শঙ্কা কিছুটা দূর হলো। আগামী ৩১ অক্টোবর ইইউ থেকে কোনো চুক্তিসহ বা চুক্তি ছাড়া বেরিয়ে যাচ্ছে ব্রিটেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্যমন্ত্রী ইয়ু বলেন, ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে বাণিজ্য বিরোধ তিক্ত হওয়ার ফলে রফতানি খাতে প্রতিকূল পরিবেশ সৃষ্টির পরিপ্রেক্ষিতে এবং ব্রেক্সিট নিয়ে অনিশ্চয়তায় এ চুক্তিটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ অর্থ বহন করছে।

মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে উভয় পক্ষই অক্টোবরের শেষ নাগাদ সংশোধন কাজ শেষ ও নভেম্বর থেকে ওই চুক্তি কার্যকর করতে চায়।

এশিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম অর্থনীতি হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া। মূলত ইলেকট্রনিকস, ইস্পাত ও গাড়ি শিল্পে বৈশ্বিক নেতৃত্বের আসনে রয়েছে দেশটি। ইইউ সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার ব্রিটেন। গত বছর ব্রিটেনে দক্ষিণ কোরিয়ার রফতানি হয়েছে ৬৩৬ কোটি ডলার মূল্যের পণ্য।

ব্রেক্সিট সময়সীমা যতই ঘনিয়ে আসছে, অংশীদারদের সঙ্গে চুক্তি চূড়ান্তের তত জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ব্রিটেন। ইইউর সদস্য হিসেবে জোটটির ৪০টি চুক্তির অংশ ছিল দেশটি। কিন্তু যুক্তরাজ্য যদি চুক্তি ছাড়া ইইউ থেকে বেরিয়ে আসে, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে ওই চুক্তিগুলো বাদ হয়ে যাবে। এতে দেশটির মোট বাণিজ্যের ১১ শতাংশ বিঘ্নিত হবে।

ইইউর সঙ্গে চুক্তিতে থাকা দেশগুলোও চাইছে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে চুক্তিগুলো নিয়ে নতুন বোঝাপড়ায় পৌঁছাতে। এ পর্যন্ত ১২টি দেশ ও অঞ্চলের সঙ্গে চলমান চুক্তির ধারাবাহিকতা ধরে রাখার ব্যাপারে ঐকমত্যে পৌঁছেছে ব্রিটেন। দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ইসরায়েল, নরওয়ে, আইসল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড ও চিলি।