পণ্যবাজার

ভিয়েতনামের রফতানি বেড়েছে ৮.৬%

বণিক বার্তা ডেস্ক    | ০০:০০:০০ মিনিট, জুলাই ১২, ২০১৯

ভিয়েতনামের রফতানি পণ্যগুলোর মধ্যে অন্যতম অপরিশোধিত জ্বালানি তেল। গত বছরের ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের শুরু থেকে দেশটির জ্বালানি তেল রফতানি খাতে প্রবৃদ্ধি বজায় রয়েছে। এর অংশ হিসেবে বছরের প্রথম পাঁচ মাসে ভিয়েতনাম থেকে জ্বালানি পণ্যটির রফতানি সাড়ে ৮ শতাংশের বেশি বেড়েছে। একই সময়ে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি করে দেশটির আয় প্রায় দেড় শতাংশ বেড়েছে। ভিয়েতনামের জেনারেল ব্যুরো অব স্ট্যাটিস্টিকসের সর্বশেষ মাসভিত্তিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর রয়টার্স।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গত জানুয়ারি-মে সময়ে ভিয়েতনাম থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ১৭ লাখ টন অপরিশোধিত

জ্বালানি তেল রফতানি হয়েছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮ দশমিক ৬ শতাংশ বেশি। একই সময়ে জ্বালানি পণ্যটি রফতানি করে ভিয়েতনামিজ রফতানিকারকরা মোট ৮৭ কোটি ৯০ লাখ ডলার আয় করেছেন। এক বছরের ব্যবধানে জ্বালানি তেল রফতানি বাবদ ভিয়েতনামের আয় বেড়েছে ১ দশমিক ৪ শতাংশ।

এদিকে রফতানি খাতে চাঙ্গাভাবের বিপরীতে এ সময় ভিয়েতনামের বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানিতে মন্দাভাব বজায় ছিল। দেশটির সরকারি তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ভিয়েতনামের আমদানিকারকরা সব মিলিয়ে ৩৭ লাখ ২০ হাজার টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল আমদানি করেছেন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৪ দশমিক ৮ শতাংশ কম। এ সময় জ্বালানি পণ্যটি আমদানি বাবদ দেশটির ব্যয় হয়েছে ২৩২ কোটি ডলার, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৮ শতাংশ কম।

একই সময় ভিয়েতনামে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) আমদানিতেও মন্দাভাব বজায় ছিল। গত জানুয়ারি-মে সময়ে দেশটিতে মোট ৬ লাখ ২৩ হাজার টন এলপিজি আমদানি হয়েছে। এক বছরের ব্যবধানে দেশটিতে জ্বালানি পণ্যটির আমদানি কমেছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ।