আন্তর্জাতিক খবর

অস্ট্রেলিয়ার ক্ষমতাসীনদের ‘অবিশ্বাস্য’ জয়

১২:৫৯:০০ মিনিট, মে ১৯, ২০১৯

বর্তমান প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মতো জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট। ফল গণনা চলাকালীনই লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির বিজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত গণনা করা হয়েছে ৭৫ শতাংশ ভোট। খবর বিবিসি।

খবরে বলা হয়েছে, শনিবার অস্ট্রেলিয়ার ৪৬তম ফেডারেল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যা ৬টা থেকে শুরু হয় ভোট গণনা। দেশটিতে একটি দলের সরকার গঠন করতে প্রয়োজন ৭৬টি আসন। ৭৫ শতাংশ ফল গণনায় লিবারেল ও ন্যাশনাল পার্টির জোট পেয়েছে ৭৪টি আসন। অন্যদিকে লেবার পার্টি পেয়েছে ৬৫টি আসন।

শনিবার রাতে বিজয় বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ভোটারদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি সবসময় অবিশ্বাস্য ঘটনায় বিশ্বাস করি।

ভোটের আগে জনমত জরিপে বিরোধী মধ্যবামপন্থী অস্ট্রেলিয়ান লেবার পার্টির (এএলপি) জয়ের ব্যাপারে জোর আভাস ছিল। দলটির নেতা বিল শর্টেন পরাজয় মেনে নিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ায় ভোট দেয়া বাধ্যতামূলক এবং এ বছর রেকর্ড পরিমান এক কোটি ৬৪ লাখ ভোটার ভোট দিয়েছেন। ভোট না দিলে ভোটারকে ২০ অস্ট্রেলীয় ডলার জরিমানা গুণতে হয়।

বিজয় ভাষণে মরিসন জোটের পক্ষে ভোট দেওয়া শান্ত অস্ট্রেলিয়ানদের শ্রদ্ধা জানান স্কট মরিসন। তিনি বলেন, এটি এমন অস্ট্রেলিয়ানদের জয়, যারা প্রতিদিন কঠোর পরিশ্রম করেছে, তাদের স্বপ্ন আছে, তাদের আকাঙ্খা রয়েছে, তারা চাকরি পেতে, ব্যবসা শুরু করতে চাই। এ ছাড়া একটি পরিবার শুরু করতে, একটি বাড়ি কিনতে, কঠোর পরিশ্রম করতে, আপনার বাচ্চাদের জন্য সর্বোত্তম সরবরাহ নিশ্চিত করতে এবং অবসর ভাতা সংরক্ষণ করা শান্ত অস্ট্রেলিয়ানরা আজ রাতে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে।