টকিজ

‘দিন দিন শিখছি আর পুনরুজ্জীবিত হচ্ছি’

২১:৫১:০০ মিনিট, মে ১৪, ২০১৯

বলিউড অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ বর্তমানে ভীষণ ব্যস্ত আলী আব্বাস জাফরের ভারত ও রোহিত শেঠির সূর্যবংশী নামের দুটি বড় বাজেটের চলচ্চিত্র নিয়ে। যথাক্রমে যেখানে তাকে দেখা যাবে সালমান খান ও অক্ষয় কুমারের বিপরীতে। বর্তমান ও অতীত কাজের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা নিয়ে সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন এ অভিনেত্রী।

আনন্দ এল রাইয়ের জিরোতে ক্যাটরিনার পারফরম্যান্স অনেক প্রশংসিত ছিল। ক্যাটরিনাও পরিচালকের প্রতি ভীষণ কৃতজ্ঞ ছিলেন। কেননা আনন্দ এমন একজন নির্মাতা, যিনি তাকে প্রকৃতভাবে আবিষ্কারে সাহায্য করেছিলেন বলে জানান ব্রাদার কি দুলহানখ্যাত এ অভিনেত্রী।

ক্যাটরিনা উল্লেখ করেছেন, তিনি এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি ইতিবাচক হয়েছেন এবং ফিল্ম সেটে তার সময়কে আরো বেশি উপভোগ করছেন। তিনি বলেন, আমি সত্যিই অনুপ্রাণিত বোধ করছি, কাজ এখন আমাকে অনেক বেশি আনন্দ দিচ্ছে। আমি উদগ্রীব হয়ে আছি নতুন কিছু শেখার জন্য, অনেক কিছু শেখার নতুন পর্যায়ে রয়েছি। অনেক সৃষ্টিশীল মানুষের সঙ্গে পথ অতিক্রম করছি, যারা আমাকে অনেক কিছু শেখাচ্ছেন, যা কিনা আমি আশাও করিনি!

ইন্ডাস্ট্রিতে এতটা সময় পার করার পর স্বাভাবিকভাবেই অনেকে নিজেকে অনন্য প্রতিভাধর মনে করেন, কিন্তু বিশ্বাস করুন, এমনটা আমার বোধ হচ্ছে না। আমি যেন দিন দিন শিখছি আর পুনরুজ্জীবিত হচ্ছি।

৩৫ বছর বয়সী এ সুদর্শনা আরো যোগ করেন—আমি যখন শুনি, অভিনেত্রী হিসেবে আমার উন্নতি ঘটেছে ও পর্দায় নতুন মাত্রা যোগ করতে পেরেছি, তখন বেশ ভালো বোধ করি। শুধু কাজের ক্ষেত্রেই নয়, ব্যক্তিগতভাবেও আমি বদলেছি। আমি সবসময়ই নিজের বিষয়ে সৎ থাকার চেষ্টা করি। ২০০৯ সালের আজব প্রেম কি গজব কাহানি বা ২০১১ সালের জিন্দেগি না মিলেগি দোবারাতে সবকিছুই চমৎকার, মজার ও আনন্দের। এমনকি এখনো আমার জীবনের সবই সুন্দর আছে। গত কয়েক বছরে অনেক কিছু দেখেছি আমি।

জীবনের উঁচু-নিচু পথে অনেক কিছুই শিখেছি। যার মাধ্যমে নিজেকে চিনেছি। আবেগ, ব্যথা, প্রেম ও বিশ্বাসঘাতকতা সম্পর্কে অনেক কিছু শিখেছি। আবার একই সঙ্গে বিশ্বাসের মতো ইতিবাচক বিষয়ও অর্জন করেছি। এখন জীবনকে গভীরভাবে দেখতে শুরু করেছি। আর এ বিষয়টিকেই কাজের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। যেখানে আনন্দ স্যারের মতো চমৎকার পরিচালক আমাকে সহায়তা করেছে। জিরো চলচ্চিত্রে তিনি আমাকে শিখিয়েছিলেন আবেগঘন দৃশ্যগুলো কীভাবে ফুটিয়ে তুলতে হয়। এসব অভিজ্ঞতা ও পরিচালকের কাছ থেকে প্রাপ্ত অনুপ্রেরণা একজন প্রকৃত অভিনেত্রী হতে আমাকে সাহায্য করবে।

 

সূত্র: ডিএনএ ইন্ডিয়া