দেশের খবর

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

লোক প্রশাসনকে শিক্ষা ক্যাডারে অন্তর্ভুক্তির দাবি

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, কুবি | ১৫:০৯:০০ মিনিট, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের (বিসিএস) শিক্ষা ক্যাডারে লোকপ্রশাসন বিষয়কে অন্তর্ভুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে লোকপ্রশাসন বিষয়কে বিভিন্ন কলেজে অন্তর্ভুক্তকরণ, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বিষয়কে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে চালুকরণ, ৪১তম বিসিএস থেকে লোক প্রশাসন বিষয়ের শিক্ষা ক্যাডার চালু এবং প্রশাসন ক্যাডারে শুধুমাত্র লোক প্রশাসনের শিক্ষার্থীদের নিয়োগ সংক্রান্ত মোট চারদফা দাবি জানানো হয়।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঁঠালতলায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. রুহুল আমীন, মো. নাহিদুল ইসলাম এবং জান্নাতুল ফেরদৌসসহ প্রায় কয়েকশ শিক্ষার্থী অংশগগ্রহণ করেন। মানববন্ধনের পূর্বে একই দাবিতে শিক্ষার্থীদের নিকট হতে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করা হয়।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, ‘এটি অত্যন্ত যৌক্তিক আন্দোলন, আমরা আশা রাখি অতিদ্রুতই আমাদের এ আন্দোলন সফল হবে এবং বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারসহ বিভিন্ন পর্যায়ে লোক প্রশাসন বিষয়কে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’

সহকারী অধ্যাপক মো. নাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রথম বর্ষ হতে শেষ বর্ষ পর্যন্ত লোক প্রশাসন পড়ে। কিন্তু দুঃখের বিষয় হল লোক প্রশাসনের ছাত্রদের জন্য বিশেষ কোন চাকরির ক্ষেত্র এখনো নেই। প্রশাসন ক্যাডারে লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের পৃথক অগ্রাধিকার দিতে হবে।’

বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মো. রুহুল আমিন বলেন, ‘লোক প্রশাসন বিষয়কে বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে অন্তর্ভুক্ত করার এই আন্দোলন নব্বই এর দশক থেকে চলে আসছে। লোক প্রশাসনের শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ প্রশাসনিক কর্মক্ষেত্রে ক্ষেত্র তৈরি করা হোক। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমাদের এই আন্দোলন অচিরেই সফলতা দেখবে এই বিশ্বাস রাখি।’

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ‘লোকপ্রশাসনের আলো কলেজে কলেজে জ্বালো’, দেশের নেতৃত্বে আসবে অগ্রগতি’, ‘৪১তম বিসিএস থেকে লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা ক্যাডারে নিয়োগের ব্যবস্থা করা হোক’, ‘বাস্তবায়ন করতে হলে সুশাসন জানতে হবে লোকপ্রশাসন’, ‘লোকপ্রশাসন বিভাগকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্তি চাই’- এসব লেখা বিশিষ্ট বিভিন্ন প্লার্কাড ও ফেস্টুন প্রর্দশন করে।