পণ্যবাজার

রুপার বৈশ্বিক চাহিদায় মন্দাভাব কেটেছে

বণিক বার্তা ডেস্ক | ০৩:৩২:০০ মিনিট, এপ্রিল ১৪, ২০১৯

২০১৫ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী রুপার চাহিদায় ধারাবাহিক মন্দাভাব বজায় ছিল। এ কারণে মূল্যবান ধাতুটির দামও ছিল তুলনামূলক কম। তবে বিদায়ী বছরে পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে গেছে। ২০১৫ সালের পর ২০১৮ সালে প্রথমবারের মতো রুপার বৈশ্বিক চাহিদায় ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধির দেখা মিলেছে। সিলভার ইনস্টিটিউটের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর মাইনিংডটকম।

ওয়াশিংটনভিত্তিক সিলভার ইনস্টিটিউটের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সর্বশেষ ২০১৮ সালে রুপার বৈশ্বিক চাহিদা দাঁড়িয়েছে ১০৩ কোটি আউন্সে, যা আগের বছরের তুলনায় ৪ শতাংশ বেশি। ২০১৫ সালের পর এটাই রুপার বৈশ্বিক চাহিদায় প্রথম উত্থান।

বিদায়ী বছরে বিশ্বব্যাপী অলঙ্কার খাতে রুপার ব্যবহার দাঁড়িয়েছে ২১ কোটি ২৫ লাখ আউন্সে, যা আগের বছরের তুলনায় ৪ শতাংশ বেশি। এ সময় শিল্প খাতে বিশ্বব্যাপী ৫৭ কোটি ৮৬ লাখ টন রুপা ব্যবহার হয়েছে। এক বছরের ব্যবধানে শিল্প খাতে রুপার বৈশ্বিক ব্যবহার কমেছে ১ শতাংশ। অন্যদিকে গত বছর বার ও কয়েন হিসেবে রুপার ব্যবহারে ২০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি বজায় ছিল।

তবে চাহিদা বাড়লেও ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক বাজারে রুপার গড় দামে মন্দাভাব দেখা গেছে। এ সময় প্রতি আউন্স রুপার গড় দাম দাঁড়িয়েছে ১৫ ডলার ৭১ সেন্টে, যা আগের বছরের তুলনায় ৭ দশমিক ৮ শতাংশ কম।