শেষ পাতা

নির্মিতব্য সব ভবন  অপটিক্যাল সংযোগের আওতায় আনার উদ্যোগ

গৃহায়ন মন্ত্রণালয়কে বিটিআরসির চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০২:০০:০০ মিনিট, মার্চ ০২, ২০১৯

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টেলিযোগাযোগ-সংক্রান্ত আধুনিক সব সেবা সুলভে ও সহজে পৌঁছে দিতে প্রতিটি ভবনকে অপটিক্যাল ফাইবার কেবলের মাধ্যমে সংযুক্ত করা হয়। দেশেও ভবিষ্যতে নির্মিতব্য সব ভবনকে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্কের আওতায় আনতে উদ্যোগ নিচ্ছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। নির্মাণের সময়েই ভবনে এর জন্য প্রয়োজনীয় স্থান রাখার বিধান যুক্ত করতে এরই মধ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

বাড়ি ও ভবনে অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগের প্রযুক্তিগুলো ফাইবার টু দ্য হোম (এফটিটিএইচ), ফাইবার টু দ্য প্রিমিজেস (এফটিটিপি) ও ফাইবার টু দ্য বিল্ডিং (এফটিটিবি) নামে পরিচিত। এ প্রযুক্তিতে অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগের মাধ্যমে একই সঙ্গে টেলিযোগাযোগ, ইন্টারনেট ও আইপিটিভি সেবা পাওয়া সম্ভব। ফলে এসব সেবা পেতে আলাদা কেবল সংযোগের ব্যবহার এড়ানো যায়। বহুতল ভবনে একটি কেবলের সংযোগ থেকেই সব অ্যাপার্টমেন্টে সংযোগ দেয়া যায়। বিশৃঙ্খলভাবে তারের ব্যবহারও রোধ করে এ প্রযুক্তি।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, দেশে প্রতিটি ভবনকে অপটিক্যাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্কে যুক্ত করতে এ-সংক্রান্ত বিধি ও নীতিমালায় বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন। পাশাপাশি ভবিষ্যতে নির্মিতব্য সব ভবনের নিচতলায় অপটিক্যাল ফাইবার টার্মিনাল বক্স ও নেটওয়ার্ক স্থাপনের প্রয়োজনীয় স্থান রাখতে হবে। ন্যূনতম দুই বর্গফুট স্থান, বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা ও সিঁড়িঘর সংলগ্ন এলাকায় আলাদা সার্ভিস ডাক্ট প্রয়োজন হবে। এক্ষেত্রে পরবর্তী সময়ে সংশ্লিষ্ট লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠান ভূগর্ভস্থ অপটিক্যাল ফাইবারভিত্তিক ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্কের সঙ্গে ভবনকে যুক্ত করে নিচতলার সংরক্ষিত স্থানে ফাইবার টার্মিনাল বক্স স্থাপন করবে। সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো এ টার্মিনাল বক্স ব্যবহার করে গ্রাহককে সেবা পৌঁছে দেবে।

এ প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ তৈরি করতেই বাংলাদেশ ভবন নির্মাণ নীতিমালাসহ (বিএনবিসি) সংশ্লিষ্ট সব বিধিমালায় প্রয়োজনীয় বিধান যুক্ত করতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (রাজউক) চিঠি দিয়েছে বিটিআরসি।

বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বলেন, উন্নত বিশ্বের দেশগুলোয় ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটসহ আধুনিক নানা সেবা দিতে ভবন পর্যন্ত অপটিক্যাল ফাইবার কেবল সংযোগ রয়েছে। দেশেও সুলভে ও সহজে এসব সেবা দিতে ভবন পর্যন্ত সংযোগ নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট বিধি ও নীতিমালায় বিষয়টি যুক্ত করার অনুরোধ জানিয়েছে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে রাজউককে চিঠি দেয়া হয়েছে।

দেশে অপটিক্যাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্ক স্থাপন ও তা ব্যবসায়িকভাবে ভাড়ার ভিত্তিতে ব্যবহারের সুযোগ দিচ্ছে নেশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠানগুলো। বর্তমানে এনটিটিএন লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা পাঁচটি। এর মধ্যে বেসরকারি খাতের দুটি প্রতিষ্ঠান ছাড়াও রয়েছে সরকারি তিনটি প্রতিষ্ঠান। ২০০৯ সালে লাইসেন্স দেয়া হয় ফাইবার অ্যাট হোম ও সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেডকে। আর ২০১৪ সালে রাষ্ট্রায়ত্ত তিন প্রতিষ্ঠান—বাংলাদেশ রেলওয়ে, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশনস কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) ও পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি) লিমিটেডকে এনটিটিএন লাইসেন্স দেয় বিটিআরসি।

উল্লেখ্য, রাজধানীর মহাখালী ডিওএইচএস ও নিকেতনসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় এরই মধ্যে এফটিটিএইচ নেটওয়ার্ক স্থাপন করেছে এনটিটিএন লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠানগুলো। এসব এলাকায় প্রতিটি ভবনই অপটিক্যাল ফাইবার কেবলের মাধ্যমে সংযুক্ত।