আন্তর্জাতিক ব্যবসা

ব্রাজিলে সবচেয়ে পুরনো কারখানা বন্ধের ঘোষণা ফোর্ডের

কাজ হারাতে যাচ্ছে ৩ হাজার কর্মী

বণিক বার্তা ডেস্ক    | ২১:৪২:০০ মিনিট, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯

ব্রাজিলে অবস্থিত নিজেদের সবচেয়ে পুরনো কারখানা বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি ফোর্ড মোটর। একই সঙ্গে দক্ষিণ আমেরিকার ভারী বাণিজ্যিক ট্রাকের ব্যবসা থেকেও সরে আসার কথা জানিয়েছে তারা। বিশ্বজুড়ে কোম্পানির লোকসান বন্ধে একটি পুনর্গঠন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এসব পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছে ফোর্ড। বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা কোম্পানিটির এ সিদ্ধান্তে হুমকিতে পড়েছে ২ হাজার ৭০০-এর বেশি কর্মসংস্থান। খবর রয়টার্স।

এর আগে ফোর্ড বিশ্বব্যাপী পুনর্গঠনের জন্য ১ হাজার ১০০ কোটি ডলার ব্যয় হবে বলে জানিয়েছিল। পুনর্গঠনের প্রভাবে কয়েক হাজার কর্মসংস্থান ক্ষতিগ্রস্ত এবং ইউরোপে কারখানা বন্ধের সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছিল। এ ঘোষণার পর বিশ্লেষক ও বিনিয়োগকারীরা ফোর্ডের কাছ থেকে দক্ষিণ আমেরিকার জন্যও একই ধরনের পুনর্গঠনের ঘোষণা আশা করেছিলেন। কিন্তু গত মাসে ফোর্ডের প্রধান নির্বাহী জিম হ্যাকেট জানান, বিনিয়োগকারীরা দক্ষিণ আমেরিকার পুনর্গঠন পরিকল্পনার জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে রাজি নন।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ফোর্ড জানায়, ব্রাজিলের সাউ বের্নার্দো দো ক্যাম্পোয় অবস্থিত কারখানাটি তারা বন্ধ করে দিচ্ছে। সাউ পাউলোর একটি শিল্প উপকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত সাউ বের্নার্দোতে ১৯৬৭ সাল থেকে কারখানাটি পরিচালিত হয়ে আসছে। ২০০১ সাল থেকে কেবল ট্রাক নির্মাণের আগে বেশকিছু গাড়ির মডেলও কারখানাটিতে উৎপাদন করা হয়। ফোর্ডের এফ-৪০০০ এবং এফ-৩৫০ মডেলের ট্রাক নির্মাণ হয় কারখানাটিতে। পাশাপাশি ফিয়েস্তার মতো ছোট গাড়িও নির্মাণ করা হয়েছে।

ব্রাজিলে কারখানাটি বন্ধ করার পর ফোর্ড লাতিন আমেরিকার বৃহত্তর অর্থনীতিটিতে নিজেদের মূল গাড়ি ব্যবসায় পুনরায় মনোযোগ দিতে যাচ্ছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশেষত উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য বাহিয়ায় অবস্থিত তুলনামূলক নতুন কারখানায় মনোযোগ বাড়াতে পারে ফোর্ড।

সাউ বের্নার্দোর কারখানা বন্ধের ফলে কত কর্মী ছাঁটাইয়ের মুখে পড়বে, সে সম্পর্কে নির্দিষ্ট করে কিছু জানায়নি ফোর্ড। তবে কারখানাটিতে বর্তমানে প্রায় তিন হাজার কর্মী রয়েছেন। এদিকে ফোর্ডের এ সিদ্ধান্ত ব্রাজিলে নবনির্বাচিত কট্টর ডানপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোর নতুন প্রশাসনের জন্য বড় ধাক্কা হিসেবে দেখা দেবে। এ মুহূর্তে ব্রাজিলে ১১ শতাংশের বেশি বেকারত্বের হার নিয়ে লড়াই করতে হচ্ছে বোলসোনারো প্রশাসনকে।

সম্প্রতি জার্মানির গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি ফক্সওয়াগনের সঙ্গে জোট বেঁধেছে ফোর্ড। এরই মধ্যে যৌথভাবে বাণিজ্যিক ভ্যান ও পিকআপ ট্রাক নির্মাণের কাজ শুরু করেছে কোম্পানি দুটি। দ্রুতই বৈদ্যুতিক ও স্বচালিত গাড়ি নির্মাণ শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে জোটটির। এছাড়া গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি দুটি অন্যান্য প্রকল্পেও একত্রে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে। এর মধ্যে দক্ষিণ আমেরিকার মতো অঞ্চলে নিজেদের সক্ষমতা একীভূত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এদিকে সাউ বের্নার্দোর কারখানা বন্ধের ঘোষণায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শহরটির মেয়র অরল্যান্ডো মোরান্ডো। ফোর্ডের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে মেয়র বলেন, কোম্পানিটি এ সম্পর্কে কোনো আগাম সতর্কতা দেয়নি এবং কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করতেও ব্যর্থ হয়েছে। তিনি বলেন, ফোর্ডের এ সিদ্ধান্তের ফলে ২ হাজার ৮০০ পরিবার সরাসরি এবং আরো দুই হাজার পরিবার পরোক্ষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাদের অন্তত প্রতিক্রিয়া জানানোর সুযোগ দেয়া উচিত। ফোর্ডের আচরণকে কাপুরুষোচিত বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।