পণ্যবাজার

ভিয়েতনামের কফি রফতানি ২৩% বেড়েছে

বণিক বার্তা ডেস্ক    | ২১:৩৯:০০ মিনিট, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৮

কফি উৎপাদন ও রফতানিকারক দেশের তালিকায় ভিয়েতনামের অবস্থান বিশ্বে দ্বিতীয়। বিশেষত রোবাস্তা কফি উৎপাদনের জন্য দেশটির খ্যাতি বিশ্বজোড়া। চলতি বছরের প্রথম ১১ মাসে দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে কফি রফতানি আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৩ শতাংশ বেড়ে সাড়ে ১৭ লাখ টন ছাড়িয়ে গেছে। ভিয়েতনামের জেনারেল স্ট্যাটিস্টিকস অফিসের আমদানি-রফতানিবিষয়ক সর্বশেষ মাসভিত্তিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর এগ্রিমানি।

দেশটির সরকারি প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৮ সালের প্রথম ১১ মাসে ভিয়েতনাম থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ১৭ লাখ ২৫ হাজার টন বা ২ কোটি ৮৭ লাখ ৫০ হাজার ব্যাগ (প্রতি ব্যাগে ৬০ কেজি) কফি রফতানি হয়েছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৩ শতাংশ বেশি। একই সময়ে পানীয় পণ্যটির রফতানি বাবদ আয় ২ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারি-নভেম্বর সময়ে কফি রফতানি বাবদ দেশটির আয় দাঁড়িয়েছে ৩৩০ কোটি ডলারে।

এদিকে মাসভিত্তিক হিসাবে সর্বশেষ নভেম্বরে ভিয়েতনাম থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ১ লাখ ৪০ হাজার টন কফি রফতানি হয়েছে। পানীয় পণ্যটির রফতানি বাবদ এ সময় ভিয়েতনামের রফতানিকারকদের আয় দাঁড়িয়েছে ২৬ কোটি ৪০ লাখ ডলারে।

এদিকে রফতানি বাজার চাঙ্গা থাকলেও চলতি বছরের শেষ ভাগে এসে ভিয়েতনামে কফির দাম কমতে শুরু করেছে। সর্বশেষ সপ্তাহে দেশটির মধ্যাঞ্চলে প্রতি কেজি কফির দাম দাঁড়িয়েছে ৩৫ হাজার ২০০ ডং (স্থানীয় মুদ্রা) বা ১ ডলার ৫১ সেন্টে। এক সপ্তাহ আগেও প্রতি কেজি কফি                     সর্বনিম্ন ৩৫ হাজার ৩০০ ডংয়ে বিক্রি হয়। মূলত আন্তর্জাতিক বাজারে তুলনামূলক  কম দাম ও সরবরাহ পর্যাপ্ত থাকায় ভিয়েতনামে কফির দামে মন্দাভাব দেখা গেছে।