টকিজ

মিরাই: পরিবারের অতীতে ফেরা

ফিচার ডেস্ক | ২১:৫৭:০০ মিনিট, ডিসেম্বর ০২, ২০১৮

চার বছর বয়সী মিরাইয়ের জন্মের পর বড় ভাই কুন প্রথম দিকে খুব আনন্দিতই হলো। কিন্তু কিছুদিন পর সে যখন দেখল মা-বাবা দুজনেই ব্যস্ত হয়ে পড়েছে মিরাইকে নিয়ে, তার জন্য যেন ওদের কোনো সময় নেই, ধীরে ধীরে একা হয়ে যেতে শুরু করল কুন। এমনকি তার এ বঞ্চিত হওয়ার অনুভূতি একসময় পরিবার ও মিরাইয়ের প্রতিও ক্রোধে রূপান্তরিত হলো। এ রকম এক পরিস্থিতিতে আচমকা নতুন এক আগন্তুকের আগমন ঘটল তাদের জীবনে। তাদের পরিবারের সঙ্গে থাকা কুকুরটিও জানাল মিরাইয়ের আগমনে সেও পরিত্যক্ত হয়েছিল।

কুন একসময় ক্ষুব্ধ হয়ে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়ে। এসে পৌঁছায় এক জাদুর বাগানে, যেখান থেকে সময় পরিভ্রমণ করা যায়, ফলে কুনের দেখা হয়ে যায় তার মায়ের সঙ্গে । সে তখন ছোট্ট এক মেয়ে, সঙ্গে তারও ছোট এক বোন। দুজনই একসঙ্গে বড় হচ্ছে, ছোট্ট কুনের দৃষ্টি খুলে যেতে শুরু করে তার বয়সী মায়ের সঙ্গে নানা অ্যাডভেঞ্চার করে। নতুন করে পৃথিবী আবিষ্কৃৃত হতে শুরু করল।

মজা হলো জাপানি পরিচালক হোসোদা পুরো কাহিনী বর্ণনা করেছেন ছোট্ট মিরাইয়ের চোখ দিয়েই।

এ অ্যানিমেশন ছবি দেখা শেষে মনে হবে মিরাই একটি স্বপ্নের মতো ছবি। জাপানে ছবিটি প্রথম মুক্তি পায় জুলাইয়ে।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন মামরু হোসোদা।