টকিজ

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে ‘জান্নাত’ ছবির প্রদর্শনী বন্ধ

বণিক বার্তা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা | ১৯:১৪:০০ মিনিট, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮

সাতক্ষীরার ‘সঙ্গীতা প্রেক্ষাগৃহে গতকাল মুক্তির কথা ছিল মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ও মাহিয়া মাহি অভিনীত চলচ্চিত্র ‘জান্নাত’। কিন্তু ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে, এমন আশঙ্কায় পুলিশ ছবিটির প্রদর্শনী বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট প্রেক্ষাগৃহ মালিককে। টকিজের কাছে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এ ছবির নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ও হল পরিচালক আবদুল হক।

জান্নাত ছবির প্রদর্শনী বন্ধ প্রসঙ্গে বণিক বার্তার পক্ষ থেকে জানতে চাইলে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমানের উত্তর, ‘‘সাতক্ষীরা জেলার অনেক মুসল্লি এ ছবির বিষয়ে আপত্তি তুলেছেন। তারা বলেছেন ‘জান্নাত’ একটি পবিত্র ইসলামী নাম। জান্নাত নামের আড়ালে কোনো অশোভন-অশ্লীল চিত্র দেখানো হলে, তাতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে। জেলার বেশ কয়েকটি মসজিদের ইমামও একইভাবে তাদের আপত্তির কথা জানিয়েছেন।’’ কিন্তু ছবিটি তো সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পেয়েই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল, এ প্রসঙ্গ টানলে পুলিশ সুপার বলেন, ‘ছবিটি ছাড়পত্র পেয়েছে সত্য। কিন্তু স্থানীয় কিছু ব্যাপার তো থাকেই। ফলে মুসল্লিদের কথায় সম্মান দিয়ে আমরা সিনেমা হল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছি ছবিটির শো বন্ধ রাখতে। তারা আমাদের অনুরোধ রেখে ‘জান্নাত’ বন্ধ রেখেছেন।’ এ ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এ ছবির নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক। তার কথা, ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে, এমন কিছুই নেই ছবিটিতে। বরঞ্চ এতে ইসলামের মাহাত্ম্য তুলে ধরা হয়েছে। ইসলামের সঙ্গে জঙ্গিবাদের যে কোনো সম্পর্ক নেই, তাই এখানে তুলে ধরা হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়ে বৈধভাবে মুক্তি দেয়া হয়েছে। সত্যিই এ ঘটনায় আমি বিস্মিত।’

এদিকে হঠাৎ করে ছবিটির প্রদর্শনী বন্ধ হওয়ায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন সঙ্গীতা সিনেমা হল পরিচালক আবদুল হক। তিনি বলেন, ‘আমাদের সব আয়োজন শেষ। প্রচার-প্রচারণাও চলেছে পুরোদমে। এজন্য হলের বিউটিফিকেশনসহ নানা বিষয়ে বেশ টাকাও ব্যয় করেছি আমরা। গত ঈদেই ছবিটি চালানোর কথা ছিল। কিন্তু তা না করে শুক্রবার থেকে শো চলবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলাম। হঠাৎ করে গতকাল সকালে পুলিশের পক্ষ থেকে তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।’