স্বাস্থ্যযত্ন

ঘুরে ফিরি শিকাগোয়...

মো. মঈন উদ্দিন | ১৮:০০:০০ মিনিট, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

‘আমার স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা থাকে সাত সাগর আর তের নদীর পাড়ে/ ময়ূরপঙ্খী ভিড়িয়ে দিয়ে সেথা দেখে এলেম তারে/ সাত সাগরের পাড়ে।’ উত্তম-সুচিত্রা অভিনীত সাগরিকা ছায়াছবির বিখ্যাত এ গান শুনেছি, আমোদিত হয়েছি, আবেগে আপ্লুত হয়েছি। কিন্তু সাত সাগর পাড়ি দিয়ে বাস্তবেই যুক্তরাষ্ট্র তথা আমেরিকা যাব, তা ভাবিনি কখনো। সে সুযোগ হয়েছে আমাদের বড় সন্তানের কারণে। কেননা তার সমাবর্তন বলে কথা। মেয়ের আবদারে যেতেই হলো সেখানে। আমার মেয়ে নাজিয়া এবার মিয়ামি বিশ্ববিদ্যালয়, অক্সফোর্ড, ওহাইয়ো, ইউএসএ থেকে স্থাপত্যকলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করল।

গত ১৫ মে সস্ত্রীক ইতিহাদ বিমানে যুক্তরাষ্ট্র রওনা হই। পথিমধ্যে আবুধাবি বিমানবন্দরে ট্রানজিট। এরপর শিকাগো গমন। সব মিলিয়ে ২১ ঘণ্টার ট্রাভেল। নিজের ভ্রমণ পরিকল্পনায় শিকাগোর অবস্থান ছিল দুদিনের জন্য। উদ্দেশ্য, ১৮৮৬ সালের পহেলা মে হে মার্কেট স্কয়ারে ঘটে যাওয়া দৈনিক ৮ ঘণ্টা শ্রমের দাবিতে ঐতিহাসিক শ্রমিক আন্দোলনের স্থানটি পরিদর্শন। এছাড়া বিশ্বখ্যাত বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত স্থপতি ফজলুর রহমান খানের ডিজাইনকৃত সিয়ার্স টাওয়ার পরিদর্শনের কথাও ভাবনায় ছিল। যে-ই কথা, সে-ই কাজ; শিকাগো গিয়েই এ দুটি স্থান পরিদর্শন করি। স্থপতি এফ আর খানের নকশায় নির্মিত সিয়ার্স টাওয়ার দেখে মন-প্রাণ ভরে গেল। অহঙ্কার বোধ করলাম স্থপতির এ অভাবনীয় কীর্তি দেখে। এ ভবনে ভূমিকম্প প্রতিরোধ ব্যবস্থা বিদ্যমান। ভূমিকম্পে ভবন দুলবে, কিন্তু ভূপতিত হবে না। তার আরো নকশা কীর্তি রয়েছে নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন ডিসি, ম্যানহাটনসহ যুক্তরাষ্ট্রের অনেক শহরে। বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করি কীর্তিমান বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত স্থপতি এফ আর খানকে।

বণিক বার্তা কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি ও বিষয়বস্তু অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি।

সম্পাদক ও প্রকাশক: দেওয়ান হানিফ মাহমুদ

বার্তা ও সম্পাদকীয় বিভাগ : বিডিবিএল ভবন (লেভেল ১৭), ১২ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫

পিএবিএক্স: ৮১৮৯৬২২-২৩, ই-মেইল: [email protected] | বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন বিভাগ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৬১৯