খবর

গরু ও ভোজ্য তেলের বিশুদ্ধতায় দুদকের তৎপরতা

বণিক বার্তা অনলাইন | ১৮:২৫:০০ মিনিট, আগস্ট ১৯, ২০১৮

আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশু ও ভোজ্য তেলের বিশুদ্ধতায় তৎপড়তা চালাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদক। 
 
রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো দুদকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অসাধু ব্যবসায়ীরা স্টেরয়েড প্রয়োগের মাধ্যমে গরু মোটাতাজাকরণের প্রক্রিয়া বেছে নিচ্ছে, দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদকের হটলাইন (১০৬) নম্বরে এমন একটি অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গৃহীত ব্যবস্থা সম্পর্কে অবহিত হতে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের দপ্তর পরিদর্শন করেছে দুদক টিম।
 
দুদকের সহকারী পরিচালক সেলিনা আখতার মনির নেতৃত্বে একটি টিম গত বৃহস্পতিবার এ পরিদর্শনে অংশ নেয়। দুদক টিম উল্লিখিত অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সাথে যুক্ত হয়ে তারা বিভিন্ন গবাদি পশুর হাট পরিদর্শন, কার্টুন, বাল্ক এসএমএস এবং ফেসবুকের মাধ্যমে জনসচেতনতা মূলক প্রচারণা চালাচ্ছে। এছাড়াও খামারীদের নিয়ে কর্মশালা করা হয়েছে। এছাড়া কোরবানির মাংসের নিরাপত্তায় ঝুঁকিসমূহ মোকাবেলায় করণীয় বিষয়সমূহ উল্লেখ করে লিফলেট প্রকাশ করেছে। 
 
অন্যদিকে ঈদুল আযহা উপলক্ষে বাজারে সরবরাহকৃত বিভিন্ন ভোজ্য তেলের মান সঠিকভাবে নিরীক্ষিত  হচ্ছে কিনা তা যাচাই করতে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউট (বিএসটিআই)- এর প্রধান কার্যালয়ে পরিদর্শন করেছে দুদক টিম।  
 
উপপরিচালক মো. হেলাল উদ্দিন শরীফ- এর নেতৃত্বে একটি টিম আজ রোববার এ পরিদর্শনে অংশ নেয়। দুদক টিম জানতে পারে, বাজারে বহুল প্রচলিত বিভিন্ন কোম্পানির ভোজ্যতেল সর্বশেষ রমজান মাসে ল্যাবরেটরিতে টেস্ট করা হয়েছে এবং সবগুলোর মান যথাযথ রয়েছে। তবে বিএসটিআই কর্তৃপক্ষ জানায়, বছরে কমপক্ষে দুই বার সার্ভেইলেন্স করার বাধ্যবাধকতা থাকলেও জনবলের অভাবে বছরে সর্বোচ্চ এক বারের বেশি মার্কেট যাচাই করা সম্ভব হচ্ছে না।
 
এ প্রসঙ্গে এনফোর্সমেন্ট অভিযানের সমন্বয়কারী দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী জানান, ‘ঈদ উপলক্ষে গবাদিপশু এবং ভোজ্যতেলসহ গুরুত্বপূর্ণ খাদ্যের মান যেন সঠিক থাকে, সে লক্ষ্যে দুদকের নিয়মিত সার্ভেইলেন্স চলছে।’