খবর

চার প্রতিষ্ঠানের কাছে টাওয়ার শেয়ারিং লাইসেন্স হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক | ০২:০০:০০ মিনিট, আগস্ট ১৭, ২০১৮

টেলিযোগাযোগ টাওয়ার ব্যবস্থাপনায় চার প্রতিষ্ঠানের কাছে লাইসেন্স হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। গতকাল বিটিআরসি কার্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে লাইসেন্স প্রদান করেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক।

লাইসেন্স পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হলো— ইডটকো বাংলাদেশ কো. লিমিটেড, টিএএসসি সামিট টাওয়ারস লিমিটেড, কীর্তনখোলা টাওয়ার বাংলাদেশ ও এবি হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেড। এর মধ্যে কমিশনের অনাপত্তিপত্রের মাধ্যমে ২০১৩ সাল থেকেই এ সেবা দিয়ে আসছে ইডটকো। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে লাইসেন্স গ্রহণ করেন ই-ডটকোর পরিচালক (করপোরেট অ্যাফেয়ার্স ও প্ল্যানিং) মো. মঞ্জুরুল ইসলাম, টিএএসসি সামিট টাওয়ারস লিমিটেডের হেড অব রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স মো. মুস্তাফিজুর রহমান, এবি হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হেনরি হিলটন ও কীর্তনখোলা টাওয়ার বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সালমান করিম।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির কমিশনার (ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স) রেজাউল কাদের, কমিশনার (স্পেকট্রাম ম্যানেজমেন্ট) মো. আমিনুল হাসান ও পরিচালক (লাইসেন্সিং) এমএ তালেব হোসেন।

টাওয়ার ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব তৃতীয় পক্ষের প্রতিষ্ঠানের কাছে দেয়ার বিধান রেখে গত এপ্রিলে টাওয়ার শেয়ারিং নীতিমালা প্রকাশ করে বিটিআরসি। একই সঙ্গে এ নীতিমালার আওতায় লাইসেন্স দিতে দরপত্র বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে টাওয়ার শেয়ারিং সেবা দিতে লাইসেন্সের আবেদন করে আট প্রতিষ্ঠান। মূল্যায়ন শেষে চার প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেয়ার সুপারিশ করে বিটিআরসি। মন্ত্রণালয় গত মাসে প্রতিষ্ঠানগুলোকে লাইসেন্স দেয়ার বিষয়টিতে অনুমোদন দেয়।

জানা গেছে, ইডটকো বাংলাদেশের দেশীয় বিনিয়োগকারী গ্রিনকন টাওয়ার কোম্পানি ও বিদেশী অংশীদার ইডটকো গ্রুপ। সামিট কমিউনিকেশন্স টিএএসসি সামিট টাওয়ারস লিমিটেডের দেশীয় বিনিয়োগকারী। প্রতিষ্ঠানটিতে বিদেশী বিনিয়োগকারী হিসেবে রয়েছে টিএএসসি টাওয়ারস ও গ্লোবাল হোল্ডিং করপোরেশন। আইএসওএন ইসিপি টাওয়ার হিসেবে আবেদন করলেও পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় কীর্তনখোলা টাওয়ার বাংলাদেশ। এ প্রতিষ্ঠানে কনফিডেন্স টাওয়ার হোল্ডিংস দেশীয় বিনিয়োগকারী ও আইএসওএন ইসিপি টাওয়ার সিঙ্গাপুর বিদেশী বিনিয়োগকারী হিসেবে রয়েছে। আর এবি হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেডে দেশী-বিদেশী বিনিয়োগকারী রয়েছে মোট নয় প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে দেশীয় বিনিয়োগকারী এডিএন টেলিকম, এবি হাইটেক ইন্টারন্যাশনাল, জেডএন এন্টারপ্রাইজ, মিম জিম টেলিকমিউনিকেশন, সাদিয়া এন্টারপ্রাইজ, সিনার্জি লজিস্টিক ও অরেঞ্জ ডিজিটাল। এ প্রতিষ্ঠানে বিদেশী বিনিয়োগকারী হিসেবে রয়েছে চায়না কমিউনিকেশন্স সার্ভিসেস ইন্টারন্যাশনাল ও চ্যাংসু ফেংফান পাওয়ার ইকুইপমেন্ট কো-লিমিটেড।