টকিজ

১৮ বছর পর গানে ফিরছেন কুসুম শিকদার!

ফিচার প্রতিবেদক | ২০:১৭:০০ মিনিট, মার্চ ০৯, ২০১৭

‘শঙ্খচিল’-এর ডানায় ভর করে এলেন, অভিনয়ে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করলেন, পরক্ষণেই চলে গেলেন নিভৃতে, নির্জনে। অভিনেত্রী কুসুম শিকদার; নিজের অভিনীত সর্বশেষ ছবি ‘শঙ্খচিল’ মুক্তির পর গেল কয়েকটা মাস পারতপক্ষে ক্যামেরার মুখোমুখি হননি। সুতরাং স্বাভাবিকভাবেই তার ভক্তকুলের প্রশ্ন, কুসুম কি চমকজাগানিয়া এমন কোনো কাজ হাতে নিয়েছেন, যে কারণে তিনি থেকেছেন একেবারে চুপচাপ? রহস্যটা ভাঙলেন কুসুম নিজেই। টকিজকে জানালেন, দীর্ঘ ১৮ বছর পর তার গাওয়া গান বাজারে আসছে। তাও চিরাচরিত নিয়ম মেনে নয়। ব্যতিক্রমটা কী? ‘জানি না কেন সে বলে গেল/সে চলে গেল/জানি না কেন ধূপছায়া রাতে জোনাকির জলসা ছেড়ে’ শিরোনামের এ গান দুটো ভার্সনে শোনা যাবে। এমনকি দুটোর নামও ভিন্ন; ‘মায়া’ ও ‘ধোঁয়া’। প্রথমটি ডুয়েট ও দ্বিতীয়টি একক।’

এ প্রজন্মের যারা কুসুম শিকদারকে শুধু অভিনেত্রী হিসেবে জেনেই অভ্যস্ত ছিলেন, তাদের জন্য কুসুমের এ গানের খবরটি হয়তো একটু অবাক করার মতোই। কিন্তু না মেনে উপায় নেই। তাদের উদ্দেশ্যেই একটু পেছন ফিরে ঘুরে আসতে হবে কুসুম শিকদারের গানের ভুবন থেকে।

১৯৯৯ সালের দিকটায় কুসুম গান করতেন মোটামুটি পেশাদারি শিল্পীর মতো। সে বছরই তার গাওয়া তিনটি অ্যালবাম বের হয়। অ্যালবাম তিনটি হলো: ‘তুমি আজ কত দূরে’ (একক), ‘জীবনের যত চাওয়া’ আর ‘অদলবদল’ (মিক্স)। তিনটি অ্যালবাম দিয়েই সংগীতশিল্পী হিসেবে নিজের জাত চিনিয়েছিলেন। কিন্তু কে জানত ছোটবেলায় স্কুলে যাওয়ার আগেই যে মেয়ের হাতেখড়ি হয়েছিল গান শেখার মধ্য দিয়ে। সেই কুসুমেরই কিনা ইচ্ছা হলো মডেল আর অভিনেত্রী হওয়ার!

২০০২ সালে লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর কুসুম গান থেকে নিজেকে সরিয়ে আনলেন; পুরোপুরি মনোযোগী হলেন অভিনয়ে। কুসুমের ভাষায়: ‘অভিনয়ের প্রতি নেশা আর পড়াশোনার প্রতি প্রচণ্ড চাপ বেড়ে যাওয়ায় তখন থেকেই যেন গানটা আমার কাছ থেকে হারিয়ে যেতে থাকে। অনেক ইচ্ছা থাকার পরও কেন জানি আর গাইতে পারলাম না।’

১৯৯৯ থেকে ২০১৭ সাল। মাঝের ব্যবধান ১৮ বছর। দীর্ঘ এ সময়ে একদিনও কি তার ভক্তদের গান গেয়ে শোনাননি কুসুম? ‘২০১৬ সালে চ্যানেল আইয়ের একটা প্রোগ্রামে অনেক সংগীতশিল্পী গেয়েছিলেন। তখন আমিও একটি নজরুলসংগীত পরিবেশন করেছিলাম। সেটা ছিল একেবারেই ঘরোয়া আয়োজন, ফলে গানের ক্যারিয়ারে এটি যোগ করতে চাই না। আনুষ্ঠানিকভাবে ১৮ বছর পর সবার জন্য গান করছি’, বলেন কুসুম।

এখন নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছা করছে, দীর্ঘ দেড় যুগ পর কুসুম কার সঙ্গে গলা বেঁধে গান গাইছেন? উত্তর সংগীতশিল্পী হৃদয় খান। মূলত গানটি লিখেছেন কুসুম শিকদার ও কম্পোজিশন করেছেন হৃদয় খান। আর ধোঁয়া নামের ভার্সনটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন তারা দুজনই। হৃদয় খানের সঙ্গে গান করার কারণটা ব্যাখ্যা করলেন কুসুম এভাবে: ‘যেহেতু অনেকটা সময় পর গান করছি, সেহেতু আমার লক্ষ্যই ছিল অন্য রকম। একজনের পরামর্শেই হৃদয়ের কাছে গানটির লিরিক নিয়ে যাই এবং দেখলাম কী অসাধারণভাবেই না ও কম্পোজিশনটা করল। এমনটি টিউনও আমার মনের মতো যুতসই হয়েছিল। এতগুলো ভালো লাগার বিষয় যেহেতু হৃদয়ের কাছ থেকে পেলাম, সেহেতু ওর সঙ্গেই চূড়ান্ত হলো সবকিছু।’

অনেক দিন পর যেহেতু নিজের কথা বলছেন কুসুম, সেহেতু গান ছাড়াও আরো কিছু কথা তো জমেই আছে। টকিজের সঙ্গে আলাপচারিতায় জানিয়ে দিলেন তাও। জানালেন, আগামী বছরের একুশের বইমেলায় নিজের লেখা বেশকিছু গল্প নিয়ে বই প্রকাশ করতে যাচ্ছেন কুসুম। এদিকে কুসুম অভিনীত তিনটি মেগা সিরিয়াল নিয়মিত প্রচার হচ্ছে টিভিতে। আর নতুন সিনেমা? ‘যেহেতু ১৫ বছরের অভিনয় জীবনে মাত্র তিনটি সিনেমা করেছি, সেহেতু অপেক্ষা তো করতেই হবে’, বলেন কুসুম। সবশেষে জানিয়ে দিলেন সিনেমা, নাটক যেটাই হোক না কেন, আপাতত এগুলোর কোনোটি নিয়েই ভাবছেন না তিনি। তার জগত্জুড়ে আগামী আরো কিছুদিন গানই নাকি ভর করে থাকবে। থাকুক না, শিল্পীর মন বলে কথা!